জীবনের প্রথম ও শেষ টেস্টে সেঞ্চুরি করলেন কুক, এই কৃতিত্বের অধিকারী আরও ৫ ব্যাটসম্যান

By Amartya Lahiri

জীবনের শেষ ইনিংসে সেঞ্চুরি করলেন কুক। ফলে ভারতের বিরুদ্ধে পঞ্চম টেস্টের চতুর্থ দিনে মধ্যাহ্নভোজের বিরতির আগেই এক বিরল কৃতিত্বকে ছুঁয়ে ফেললেন তিনি। অভিষেক টেস্টেও সেঞ্চুরি করেছিলেন তিনি। ক্রিকেটের ইতিহাসে এই কৃতিত্ব আছে আর মাত্র ৪ জনের।

জীবনের প্রথম ও শেষ টেস্টে সেঞ্চুরি আছে ৫ ব্যাটসম্যানের

আন্তর্জাতিক অভিষেক টেস্টে যে কোনও ক্রিকেটারের অত্যন্ত নার্ভাস থাকেন। একদিকে থাকে প্রমাণ করার চাপ, অপরদিকে প্রথম সেই ক্রিকেটের বড় স্টেজে ১১ জন প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে একা ব্যাট হাতে দাঁড়ানোর বুক দুড়দুড়ানি। তাই সেই ম্যাচে সেঞ্চুরি করা মোটেই সহজ কথা নয়। আবার বিদায়ী টেস্টে মন দ্রবীভূত থাকে আবেগে। গোটা কেরিয়ারের স্মৃতি এসে ভিড় করে। সেসব সরিয়ে ক্রিকেটে মনোনিবেশ করাটাও কঠিন।

কাজেই এই দুই ইনিংসে সেঞ্চুরি করা ব্যাটসম্যানদের তালিকাটা খুব দীর্ঘ নয়। দেখে নেওয়া যাক কোন কুককে নিয়ে কোন ৫ ব্যাটসম্যানের আছে এই বিরল রেকর্ড।

রেজিনাল্ড ডাফ (১০৪ ও ১৪৬)

রেজিনাল্ড ডাফ (১০৪ ও ১৪৬)

অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার রেজিনাল্ড আলেকজান্ডার ডাফ বেশি পরিচিত ছিলেন রেজি ডাফ নামেই। ১৯০২ থেকে ১৯০৫'য়ের মধ্যে তিনি ২২টি টেস্ট ম্যাচ খেলেছিলেন। ১৯০১ সালে মেলবোর্নে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ১০ নম্বরে ব্যাট করতে নেমে তিনি ১০৪ রান করেন। জীবনের শেষ টেস্টে তিনি করেছিলেন ১৪৬। তিনিই এই ক্লাবের প্রথম সদস্য।

বিল পনসফোর্ড (১১০ ও ২৬৬)

বিল পনসফোর্ড (১১০ ও ২৬৬)

পনসফোর্ডও অস্ট্রেলিয় ক্রিকেটার। তিনি সাধারণত ওপেন করতেন। সিডনিতে ১০২৪ সালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ৩ নম্বরে ব্যাট করতে নেমে তিনি ১১০ রান করেছিলেন। শেষ টেস্টে প্রতিপক্ষ ছিল সেই ইংল্যান্ড। ওভাল ক্রিকেট গ্রাউন্ডে সেই টেস্টে তিনি ২৬৬ রান করেন। এটিই তাঁর টেস্টের সর্বোচ্চ রান ছিল

 গ্রেগ চ্যাপেল (১০৮ ও ১৮২)

গ্রেগ চ্যাপেল (১০৮ ও ১৮২)

তালিকার তিন নম্বর নামটি ভারতীয়দের অতি পরিচিত অস্ট্রেলিয় ক্রিকেটার গ্রেগ চ্যাপেলের। ১৯৭০ সালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে অভিষেক টেস্টে তিনি ১০৮ রান করেছিলেন। ১৯৮৪ সালে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে শেষ টেস্ট খেলেছিলেন এই বিখ্যাত অস্ট্রেলিয় ব্যাটসম্যান। সেি ম্যাচে তাঁর স্কোর ছিল ১৮২।

মহম্মদ আজহারউদ্দীন (১১০ ও ১০২)

মহম্মদ আজহারউদ্দীন (১১০ ও ১০২)

এই তালিকার চতুর্থজন হলেন ভারতের প্রাক্তন ক্যাপ্টেন মহম্মদ আজহারউদ্দীন। ১৯৮৪ সালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে তাঁর অভিষেক হয়। সেই টেস্টে তিনি করেছিলেন ১১০ রান। পরবর্তী জীবনে ম্যাচ গড়াপেটায় জড়িত থাকার অভিযোগে ৯৯টি টেস্ট খেলেই থামতে হয়েছিল তাঁকে। শেষ টেস্ট তিনি খেলেন ২০০০ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে। সেই ম্যাচে তাঁর রান ছিল ১০২।

অ্যালিস্টার কুক (১০৪* ও ১০৩* (লাঞ্চ অবধি))

অ্যালিস্টার কুক (১০৪* ও ১০৩* (লাঞ্চ অবধি))

২০০৫ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজে ন্যাশনাল ক্রিকেট অ্যাকাডেমির হয়ে খেলতে গিয়েছিলেন কুক। অধিনায়ক মাইকেল ভন চোট পাওয়ায় তাকে ভারতে সফররত ইংল্যান্ড দলে ডাকা হয়েছিল। প্রথম ইনিংসে ৬০ রান করেছিলেন। কিন্তু দ্বিতীয় ইনিংসে তিনি ১০৪ রান করে অপরাজিত ছিলেন। সেই কুক ২০১৮-তে এসে ওভাল টেস্ট খেলে অবসর নেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন। শেষ টেস্টেও প্রতিপক্ষ সেই ভারত। এই টেস্টেও প্রথম ইনিংসে ৭১ রান করার পর দ্বিতীয় ইনিংসে সেঞ্চুরি করেছেন তিনি। চতুর্থ দিন লাঞ্চ পর্যন্ত তিনি ১০৩ রানে অপরাজিত আছেন।

For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    Story first published: Monday, September 10, 2018, 19:34 [IST]
    Other articles published on Sep 10, 2018
    POLLS

    পান মাইখেল-এর ব্রেকিং নিউজ অ্যালার্ট
    mykhel Bengali

    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Mykhel sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Mykhel website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more