রামধনুর দেশে ইতিহাস কোহলি এন্ড কোংয়ের, জিতে সিরিজ পকেটে টিম ইন্ডিয়ার

Posted By: Debalina

৩-১ সিরিজে এগিয়ে থেকে পোর্ট অফ এলিজাবেথে পঞ্চম একদিনের ম্যাচ শুরু করেছিল ভারত। ডারবানে প্রথম ম্যাচে ৬ উইকেটে জিতেছিল, সেঞ্চুরিয়নে ৯ উইকেটে, কেপটাউনে ১২৪ রানে ম্যাচ জিতেছিল তারা। তবে ওয়ান্ডারার্সে হারতে হয়েছিল তাদের। এদিকে পোর্ট অফ স্পেনে প্রথম বার ম্যাচ যেমন জিতল ভারত। ঠিক তেমনিই প্রথমবার দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে তাদের মাটিতে এই প্রথম একদিনের সিরিজ জিতল ভারত। মূলত তরুণ ক্রিকেটারদের নিয়ে তৈরি দল নিয়ে কামাল করলেন কোহলি।

 রামধনুর দেশে ইতিহাস কোহলি এন্ড কোংয়ের,

এদিন টসে জিতে ভারতীয় দলকে প্রথমে ব্যাট করতে পাঠায় দক্ষিণ আফ্রিকা। লাগাতার চার ম্যাচে ব্যর্থতার পর এই ম্যাচে রানে ফেরেন ওপেনার রোহিত শর্মা। ১২৬ বলে ১১৫ রানের এক মহা গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেন তিনি। এদিন অবশ্য ভালো শুরু করেও বড় স্কোর করতে ব্যর্থ গত ম্য়াচের শতরানকারী শিখর ধাওয়ান। তিনি মাত্র ২৩ বলে ৩৪ রান করে আউট হয়ে যান।

এদিকে আগের একাধিক ম্যাচের মতো এদিনও রোহিতের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝির জেরে রান আউট হয়ে যান অধিনায়ক বিরাট কোহলি। ৫৪ বলে ৩৬ রান করেন তিনি। এদিকে দুটি পরপর বড় উইকেট পড়ে গেলেও ফোকাস হারাননি রোহিত। খুব একটা হিটম্যান কায়দায় না খেললেও দারুণ দায়িত্বশীল ভাবে ভারতীয় ইনিংস গড়ার কাজে লেগে পড়েন এই মুম্বইকর। এদিন নিজের ১৭তম শতরান করে নেন তিনি।

দিকে শুধু বিরাট কোহলিই নন, রোহিতের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝির জেরে মাত্র ৮ রানে আউট হয়ে যান অজিঙ্ক রাহানেও। এরপর রোহিতকে সঙ্গ দেন তরুণ শ্রেয়স আয়ার। ৩০ রান করেন তিনি। ফের ব্যর্থ হার্দিক পান্ডিয়া। ধোনি ১৭ বলে ১৩ ও ভুবনেশ্বর কুমার ২০ বলে ১৯ রান করেন। ৫০ ওভারে ভারতীয় দল ৭ উইকেটে ২৭৪ রান করে। দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে সফলতম বোলার এনগিদি ৪ উইকেট নেন।

এদিকে জয়ের জন্য প্রয়োজনীয় ২৭৫ তাড়া করতে নেমে শুরুটা ভালোই করেছিল দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক মার্করাম ও হাসিম আমলা। মার্করাম ৩২ করে বুমরাহের শিকার। এরপর ব্যাট হাতে শূন্য করা হার্দিক পান্ডিয়া জেপি ডুমিনিকে মাত্র ১ রানে প্যাভিলিয়নের রাস্তা দেখিয়ে দেন। এবি ডিভিলিয়ার্সও ৬ রান করে আউট হন হার্দিক পান্ডিয়ার বলেই। ফের ওয়ান্ডারার্সের মতো হাল ধরেন ডেভিড মিলার। তিনি অবশ্য এদিন ৩৬ রান করে আউট হয়ে যান। আমলাকে আউট করে ম্যাচের রাশ পুরোপুরি নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে নেন পান্ডিয়া। এরপরেও কালসেন মারকুটে হয়ে ম্যাচ বার করার একটা চেষ্টা করেছিলেন। কুলদীপ যাদবের এক ওভারে চার , ছয় মারলেও তার হাতেই বধ হন এরপরেই গুটিয়ে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা। সামসির ক্যাচ দুরন্ত ভাবে একহাতে নিয়ে নেন পান্ডিয়া। ৪২.২ ওভারে ২০১ রানে অলআউট হয়ে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা। ৭৩ রানে ম্যাচ জিতে সিরিজের স্কোরলাইন ৪-১ করে নিল ভারত।

এদিনের শতরানের জন্য ম্যান অফ দ্য ম্যাচ হন রোহিত শর্মা।

ক্রিকেট ভালবাসেন? প্রমাণ দিন! খেলুন মাইখেল ফ্যান্টাসি ক্রিকেট

Story first published: Wednesday, February 14, 2018, 0:12 [IST]
Other articles published on Feb 14, 2018
POLLS

পান মাইখেল-এর ব্রেকিং নিউজ অ্যালার্ট
mykhel Bengali