সবুজ-মেরুন তরণী পাল তুলেছে কলিঙ্গপারে, পাহাড়ি বাধা সরিয়ে সুপারে ডার্বির আঁচ

Posted By:

এবার এখনও পর্যন্ত ট্রফিহীন মোহনবাগান। ইস্টবেঙ্গলের তবু ঘরোয়া লিগ জুটেছে, কিন্তু মোহনবাগানের তাও নেই। তাই সুপার কাপকে পাখির চোখ করেছে কলকাতার দুই ক্লাবই। এখনও পর্যন্ট দুই ক্লাবই সফল। মোহনবাগান সেমিফাইনাল খেলবে বেঙ্গালুরু ও নেরোকা ম্যাচের বিজয়ীর সঙ্গে। আর ইস্টবেঙ্গল সেমিফাইনাল খেলবে জামশেদপুর ও গোয়া ম্যাচের বিজয়ীর সঙ্গে।

সবুজ-মেরুন তরণী পাল তুলেছে কলিঙ্গপারে, পাহাড়ি বাধা সরিয়ে সুপারে ডার্বির আঁচ

এদিন মোহনবাগানের কাছে চ্যালেঞ্জ ছিল লাজংয়ের বাধা টপকানো। ওড়িশার গরমে লাজংয়ের মোকাবিলা করতে গিয়ে গরমে ক্লান্ত হয়ে পড়বে না তো মেরিনিয়ার্সরা, সেই আশঙ্কাকে দূরে সরিয়ে বাজিমাত করে গেলেন আক্রাম-ডিকারা। ফৈয়াজের গোলে প্রথমেই এগিয়ে গিয়েছিল মোহনবাগান। তারপর নিখিল কদমের গোলে ২-০ করে ফেলে ২২ মিনিটেই। ২৮ মিনিটে লাজং এরপর একটি গোল শোধ করে দেয়। তবে আশঙ্কা কাটিয়ে মোহনবাগানের জয় নিশ্চিত করেন আক্রাম মোঘরাবি। তিনি ৫৯ মিনিটে লাজংয়ের জালে বল পাঠিয়ে কাঙ্খিত জয় নিশ্চিত করেন।

সবুজ-মেরুন তরণী পাল তুলেছে কলিঙ্গপারে, পাহাড়ি বাধা সরিয়ে সুপারে ডার্বির আঁচ

এদিন শিলটন পাল একটি পেনাল্টি বাঁচান অনবদ্য দক্ষতায়। বিপক্ষ স্ট্রাইকার স্যামুয়েলের শট আটকে দেন বাজপাথির মতো ঝাঁপিয়ে পড়ে। তিনি কেন আই লিগের সেরা গোলরক্ষক হয়েছেন, এবার তার প্রমাণ রাখলেন এদিন। এদিনের এই ম্যাচের পর সুপার কাপেও ডার্বির সম্ভাবনা আরও বাড়ল। মোহন-ইস্ট উভয়ে আর একটি করে ম্যাচ জিতলেই সুপার কাপের ফাইনালে ডার্বির দামাম বেজে যাবে। কলকাতা তথা দেশের ফুটবলপ্রেমীরা এখন সেদিকেই তাকিয়ে।

Story first published: Wednesday, April 11, 2018, 19:31 [IST]
Other articles published on Apr 11, 2018
+ আরও
POLLS

পান মাইখেল-এর ব্রেকিং নিউজ অ্যালার্ট
mykhel Bengali