ফিরে দেখা ২০১৬: এবছর কী ঘটল খেলার দুনিয়ায়

বিদায় ২০১৬। স্বাগতম ২০১৭। জগতে কিছুই চিরস্থায়ী নয়। সময় তো নয়ই। নিজস্ব ধারায় নিজস্ব ছন্দে সে বয়ে চলে। সেই ধারাতেই কেউ বিদায় নেয়, সেই পথ ধরে আগমন ঘটে অন্য কারও। তেমনই ২০১৬-র পথ ধরে ২০১৭-র আগমন ঘটেছে। এই এক বছরে খেলার দুনিয়ায় ঘটে গেছে অনেক ঘটনা। কেউ জিতেছেন, কেউ হেরেছেন। কাউকে হারাতে হয়েছে চিরতরে। আনন্দ দিয়েছে, দিয়েছে কান্নাও। এমন অনেক ঘটনার সাক্ষী থেকেছে বিদায়ী ২০১৬। বর্ষ শেষের সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়ে সেইসব ঘটনাকেই আর একবার ফিরে দেখা।

অলিম্পিকে নারীশক্তি

অলিম্পিকে নারীশক্তি

এবার অলিম্পিকের আসরে বিশেষ কৃতিত্বের স্বাক্ষর রাখলেন ভারতের মহিলা ক্রীড়াবিদরা। পি ভি সিন্ধুর রূপোর পাশে সাক্ষী মালিকের ব্রোঞ্জ। অনন্য নজির স্থাপন করলেন আরেক মহিলা ক্রীড়াবিদ দীপা কর্মকার। অলিম্পিকে অংশগ্রহণকারী ভারতের প্রথম মহিলা এই জিমন্যাস্ট অল্পের জন্য ব্রোঞ্জ হাতছাড়া করেন। পিটি উষার পর ললিতাই প্রথম মহিলা যিনি হেপ্টালথনে ফাইনালে ওঠেন।

সিন্ধুর শিখরে পাড়ি

সিন্ধুর শিখরে পাড়ি

শুধু অলিম্পিকেই সিন্ধুরাজ নয়, বিশ্ব ব্যাডমিন্টনেও নজরকাড়া পারফরমেন্স গোপীচাঁদের এই ছাত্রীর। চিন ওপেনেও চ্যাম্পিয়ন তিনি। রিও অলিম্পিকের আসরে সোনা জয়ের কাছাকাছি পৌঁছে গেলেও একটুর জন্য সোনা হাতছাড়া হয় স্পেনের কারোলিনা মারিনের কাছে হেরে। বিশ্ব ব্যাডমিন্টনে অবশ্য সেই প্রতিশোধ নিয়ে নেন সিন্ধু। কোয়ার্টার ফাইনালে স্ট্রেট সেটে হারিয়ে দেন মারিনকে।

প্যারা অলিম্পিকে বাজিমাত

প্যারা অলিম্পিকে বাজিমাত

অলিম্পিকে না পারলেও প্যারা অলিম্পিকে স্বর্ণপদক লাভ করে ভারত। বিশেষ ভাবে সক্ষম ক্রীড়াবিদদের দাপটে এবার প্যারা অলিম্পিকে দু'টো সোনা-সহ চারটি পদক লাভ করে ভারত। হাই জাম্পে সোনা জেতেন মারিয়াপ্পান থাঙ্গাভেলু। এই ইভেন্টে ব্রোঞ্জ জেতেন বরুণ ভাট্টি। ভারতের দ্বিতীয় সোনাটি আসে জাভেলিনে দেবেন্দ্র ঝাঝারিয়ার হাত ধরে। ডিসকাসে রুপো জেতেন দীপা মালিক।

সাতে সাত ইস্টবেঙ্গল

সাতে সাত ইস্টবেঙ্গল

টানা সাত বার কলকাতা লিগ জিতে নতুন রেকর্ড সৃষ্টি করল ইস্টবেঙ্গল। ২০১০ থেকে ২০১৬ টানা সাতবার কলকাতা লিগ ঘরে তুলল লাল-হলুদ শিবির। ১৯৭০ থেকে ১৯৭৫, টানা ছ'বার কলকাতা লিগ জেতার রেকর্ড ছিল তাদেরই। সেই রেকর্ডকে আরও উন্নত করে ইতিহাস সৃষ্টি করল তারা। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী মোহনবাগান এবার ডার্বি না খেলে লিগ ও রেকর্ড তুলে দিল ইস্টবেঙ্গলের হাতে।

এএফসি ফাইনালে বেঙ্গালুরু

এএফসি ফাইনালে বেঙ্গালুরু

ভারতীয় ফুটবলে ইতিহাস সৃষ্টি থেকে এক ধাপ আগে থেমে গেল বেঙ্গালুরুর দৌড়। তবু এএফসি-র ফাইনালে ওঠা কম কৃতিত্বের নয়। এর আগে কোনও দল এএফসি কাপের ফাইনালে উঠতে পারেনি। সেদিক দিয়ে বিচারে ভারতীয় ফুটবলে এক উল্লেখযোগ্য ঘটনা এটা। সেমিফাইনালে মালয়েশিয়ার দলকে হারিয়ে ফাইনালে উঠলেও শেষ রক্ষা হয়নি। ইরাকের ক্লাবের বিরুদ্ধে হেরে যায় বেঙ্গালুরু।

চক দে ইন্ডিয়া

চক দে ইন্ডিয়া

২০১৬ যুব বিশ্ব কাপ হকিতে চ্যাম্পিয়ন হল ভারত। বেলজিয়ামকে ফাইনালে হারিয়ে হকিতে সেরার শিরোপা ছিনিয়ে নিল ভারতের তরুণরা। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানকে ফাইনালে হারিয়ে এশিয়া-সেরাও হয় পুরুষ হকি দল। চিনকে ফাইনালে উড়িয়ে এশিয়া সেরার শিরোপা পায় মহিলা হকি দলও। এবার অলিম্পিকেও দারুন খেলে তারা। কোয়ার্টার ফাইনালে হেরে গেলেও এবার অলিম্পিকে স্বপ্ন দেখিয়েছিল ভারত।

বিরাট বছর

বিরাট বছর

এই বছরটা বিরাট কোহলির বললেও অত্যুক্তি হয় না। তাঁর অধিনায়কত্বে টেস্টে ফের সিংহাসনে ভারত। সঙ্গে ব্যাটিং তাণ্ডব। তিনটে দ্বিশতরান এক বছরে। ব্যাটে রানের ফুলঝুরি। টেস্ট অধিনায়ক হিসেবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ, নিউজিল্যান্ড আর ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টানা তিনটি সিরিজ জিতে র‍্যাঙ্কিং-এ শীর্ষে ভারত। শুধু টেস্টেই নয় ব্যাটসম্যান কোহলির বিরাট কীর্তি ওয়ান ডে ও টি-টোয়েন্টিতেও।

অপ্রতিরোধ্য অশ্বিন

অপ্রতিরোধ্য অশ্বিন

এই মুহূর্তে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার রবিচন্দ্রন অশ্বিন। বোলার হিসেবে তার গতি অপ্রতিরোধ্য। বিশ্বের সেরা ক্রিকেটারের তকমা পান তিনি। বোলিং-এর পাশাপাশি তিনি এখন ব্যাটসম্যান হিসেবেও পরিণত। ব্যাট হাতে ছয় নম্বরে ভরসা জোগাচ্ছেন তিনি। শক্ত হাতে দলকে চাপ মুক্ত করছেন তিনি। এখনও ৫০টি টেস্ট খেলা হয়নি। এরই মধ্যে সব রেকর্ড তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ছে তাঁর কাছে।

সেওয়াগের পর নায়ার

সেওয়াগের পর নায়ার

এতদিনই এই কীর্তি ছিল একমাত্র সেওয়াগের। যা নেই গাভাসকার, শচীনেরও। একমাত্র ভারতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে ত্রি-শতরানের মালিক ছিলেন তিনি। এবার তাঁর কৃতিত্বে ভাগ বসালেন করুন নায়ার। জীবনের প্রথম সেঞ্চুরিটাই তিনি ট্রিপলে টেনে নিয়ে গেলেন। অনন্য কৃতিত্ব। তাঁর সামনে এখন বীরেন্দ্র সেওয়াগের রেকর্ড ছোঁয়ার সুযোগ। ইনিংস ডিক্লেয়ার না করলে হয়তো সেওয়াগের সর্বোচ্চ রানের রেকর্ডটাও ভেঙে যেত। প্রতম সেঞ্চুরিটাই ত্রিশতরানে নিয়ে যাও.আর এই কৃতিত্ব রয়েছে দু'জনের। গ্যারি সোবার্স ও ববি সিম্পসনের।

‘নন্দন কাননে’ গোলাপি ক্রিকেট

‘নন্দন কাননে’ গোলাপি ক্রিকেট

ইতিহাসে ঢুকে পড়ল ক্রিকেটের নন্দন কানন ইডেন গার্ডেন্স। সৌরভের উদ্যোগে সিএবির চারদিনের লিগ ফাইনাল অনুষ্ঠিত হল গোলাপি বলে। এভাবে আইসিসি-র পিঙ্ক বলের দিন-রাতের টেস্ট আয়োজনের উদ্যোগকে স্বাগত জানান মহারাজ। ইডেনের বুকে পিঙ্ক বলের প্রথম ম্যাচে জয় পায় মোহনবাগান। গত ১৪ জুন ভবানীপুরকে হারিয়ে সিএবি লিগ চ্যাম্পিয়ন হয় সবুজ মেরুন ক্রিকেট টিম।

সেরার সেরা রোনাল্ডো

সেরার সেরা রোনাল্ডো

নিজের ফুটবল কেরিয়ারের সেরা বছর কাটালেন সিআর সেভেন। মেসিকে টপকে ব্যালন ডি'ওর উঠল ক্রিশ্চিয়ানোর হাতে। কেনই বা উঠবে না অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের পাশাপাশি তাঁর অধিনায়কত্বে পর্তুগাল এবার ইউরো কাপ চ্যাম্পিয়ন। এবার সব থেকে বেশি গোল করার কৃতিত্বও গড়েছেন তিনি। ফিফার বিচারে বর্ষ সেরা রোনাল্ডো ছাড়া তাই কে হতে পারেন এবার! একমাত্র মেসি তাঁর সামনে। এল এম টেন এই খেতাব অর্জন করেছেন পাঁচ বার রোনাল্ডো এখন এক ধাপ পিছিয়ে তাঁর থেকে।

নীল-সাদায় মেসির ফিরে আসা

নীল-সাদায় মেসির ফিরে আসা

বিশ্বকাপ ফাইনালে জার্মানির কাছে হারের পর টানা দুবার কোপা আমেরিকার চুড়ান্ত ম্যাচেও সাফল্য আনতে পারেননি ফুটবলের রাজপুত্র। তাই বহু আকাঙ্খিত সাফল্যের ঠিকানা না পেয়ে অভিমানে লিওনেল মেসি ঘোষণা করেছিলেন নীল-সাদা জার্সিতে আর মাঠে নামবেন না তিনি। তাঁর অবসরে স্তম্ভিত হয়ে যায় ফুটবল বিশ্ব। তাঁকে ফিরিয়ে আনার জন্য বিভিন্ন মহল থেকে অনুরোধ আসতে শুরু করে। অবশেষে আর্জেন্টিনার নতুন কোচ বাউজার অনুরোধে সিদ্ধান্ত বদলান মেসি। উরুগুয়ের বিরুদ্ধে বিশ্বকাপ কোয়ালিফায়িং ম্যাচে প্রত্যাবর্তন করেই গোলের মুখ দেখেন আর্জেন্টাইন তারকা।

বোল্টের ‘ট্রিপল ট্রিপল’

বোল্টের ‘ট্রিপল ট্রিপল’

পর পর তিনটি অলিম্পিকে হ্যাটট্রিকের হ্যাটট্রিক করে অলিম্পিককে বিদায় জানালেন ‘গ্রেটেস্ট' উসেইন বোল্ট। ১০০ মিটার, ২০০ মিটার ৪০০ মিটার রিলেতে রিও অলিম্পিকেও সোনার পদক জয়ের হ্যাটট্রিক করলেন জামাইকান এই স্প্রিন্টার। এনিয়ে পর পর তিনটি অলিম্পিকে তিনি স্বর্ণ পদক জয়ের কৃতিত্ব অর্জন করেন। তিন অলিম্পিকে নয় সোনা অর্জনের অনন্য কৃতিত্ব বোল্ট ছাড়া আর কারও নেই।

ফেল্পস একাই ২৩

ফেল্পস একাই ২৩

একাই ২৩টি সোনা জিতে অলিম্পিকের ইতিহাসে অনন্য স্বাক্ষর রেখে গেলেন মাইকেল ফেল্পস। ব্যক্তিগত ভাবে তিনি সর্বকালের সেরা অলিম্পিসিয়ান। ব্যক্তিগত পদক সংখ্যায় সবার উপরে সোনার হরফে লেখা রয়েছে আমেরিকান এই সাঁতারুর নাম। রিও-র আসরে এই অনন্য কীর্তি গড়ে অলিম্পিককে বিদায় জানালেন ফেল্পস। যে অনন্য নজির তিনি গড়ে গেলেন তা ভাঙা একপ্রকার দুঃসাধ্য।

প্রয়াত মহম্মদ আলি

প্রয়াত মহম্মদ আলি

৩২ বছর অসম যুদ্ধ চালিয়ে অবশেষে হার মানলেন বিশ্বজয়ী মুষ্টিযোদ্ধা মহম্মদ আলি। গত ৩ জুন ৭৪ বছর বয়সে কিংবদন্তি এই বক্সার প্রয়াত হন আমেরিকার এক হাসপাতালে। মার্কিন এই বক্সার তাঁর বিজয় যাত্রা শুরু করেছিলেন অলিম্পিকে সোনা জয় দিয়ে। জয়কে তিনি অভ্যাসে পরিণত করেছিলেন। কেরিয়ারে মোট ৬১টি লড়াইয়ের মধ্যে ৫৬টিতেই জেতেন আলি। তিন বার বিশ্ব হেভিওয়েট চ্যাম্পিয়নশিপ খেতাব জিতে অবসর নেন তিনি।

চলে গেলেন ক্রুয়েফ

চলে গেলেন ক্রুয়েফ

২৪ মার্চ ফুটবল বিশ্ব হারাল কিংবদন্তি জোয়ান ক্রুয়েফকে। ৬৮ বছর বয়সে জীবন এই ফুটবল কিংবদন্তির। হল্যান্ডের খ্যাতনামা ফুটবলার ছিলেন তিনি। ফুটবলার হওয়ার পাশাপাশি একজন সফল কোচও ছিলেন ক্রুয়েফ। বিভিন্ন ক্লাবের হয়ে ৬৬১টি ম্যাচ খেলে ৩৬৯টি গোল করেন ক্রুয়েফ। হল্যান্ডের হয়ে ৫০টি আন্তর্জাতিক ম্যাচে ৩৩টি গোল রয়েছে ক্রুয়েফের।

চিরবিদায় হানিফ মহম্মদ

চিরবিদায় হানিফ মহম্মদ

ক্রিকেটের প্রথম লিটিল মাস্টার হানিফ মহম্মদ চিরবিদায় জনালেন দুনিয়াকে। ১১ আগস্ট শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮১ বছর। প্রথম এশীয় ক্রিকেটার হিসেবে তিনি তিনশো করার নজির গড়েন। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে ৩৩৭ রানের ইনিংস খেলেন পাকিস্থানের এই ক্রিকেটারটি। শচীনের আগে তিনিই ছিলেন লিটিল মাস্টর। প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে আছে তাঁর ৪০০ করার অনন্য কীর্তি।

For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

Story first published: Monday, January 2, 2017, 13:07 [IST]
Other articles published on Jan 2, 2017
POLLS

পান মাইখেল-এর ব্রেকিং নিউজ অ্যালার্ট
mykhel Bengali

Notification Settings X
Time Settings
Done
Clear Notification X
Do you want to clear all the notifications from your inbox?
Settings X
We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Mykhel sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Mykhel website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more