বিশ্বকাপ জয়ের দিনে সেনার বেশে প্রবেশ ধোনির, গ্রহণ করলেন দেশের অন্যতম সর্বোচ্চ নাগরিক সম্মান

সালটা ২০১১। দিনটা ছিল ২ এপ্রিল। উত্তেজনায় কাঁপছে মুম্বইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়াম। চারিচদিকে একটাই আওয়াজ 'ধো---নি- ধোনি-- ধো---নি- ধোনি'। ভারতের বিশ্বকাপ ক্যাপ্টেনের ব্যাট থেকে বেরিয়ে এল এক বিশাল ছক্কা। রাতের আকাশ ফুঁড়ে বলটা তখন উড়ে যাচ্ছে গ্যালারির দিকে। অত্যাশ্চর্য গ্য়ালারির পাখির চোখ যেন সেই বল। শব্দ বিস্ফোরণের শব্দে তোলপাড় চারিদিক। উইকেট তুলে দৌঁড়চ্ছেন ধোনি। আনন্দে আত্মহারা যুবরাজ সিং। পঞ্চাশ ওভারের একদিনের ক্রিকেটে বিশ্বকাপ জয়ের আনন্দে তখন মাঠে নেমে এসেছে গোটা ভারতীয় ড্রেসিংরুম। আনন্দে কেঁদে ফেলেছেন শচিন তেন্ডুলকর। ৭ বছর আগে ২এপ্রিলের এই স্মৃতি এখনও যেন টাটকা ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমীদের স্মৃতিতে।

আরও এক বৃত্ত সম্পূর্ণ করলেন ধোনি, দেশবাসীকে করলেন গর্বিত

৭ বছর আগে যে ওয়াংখেড়ে-তে ধোনির প্রবেশ ঘটেছিল অধিনায়ক হিসাবে। সেই ধোনি ৭ বছর পর একই দিনে দেশের সর্বোচ্চ নাগরিকের চৌহদ্দিতে প্রবেশ করলেন সেনার বেশে। নাম ঘোষণা হতেই আস্তে আস্তে এগিয়ে চললেন বীর সেনানি ধোনি। রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দকে স্যালুট ঠুকে বুক চিতিয়ে দাঁড়িয়ে পড়লেন। আর রাষ্ট্রপতি ততক্ষণে ধোনির বুকে লাগিয়ে দিয়েছেন দেশের তৃতীয় সর্বোচ্চ নাগরিক সম্মান পদ্মভূষণের ব্যাজ। হাতে তুলে দিয়েছেন মানপত্র।

২০১১ সালে বিশ্বকাপ হাতে তুলে নিয়ে অন্য এক যাত্রা শুরু হয়েছিল ধোনির, ঠিক তার ৭ বছর পরে ২০১৮ সালের ২ এপ্রিল যেন সেই চলার বৃত্তটা সম্পূর্ণ করলেন বিশ্বকাপ জয়ী প্রাক্তণ অধিনায়ক। এদিন যখন রাষ্ট্রপতি ভবনে ধোনি প্রবেশ করেন তখন তাঁর সঙ্গে ছিলেন স্ত্রী সাক্ষী। হলুদ শাড়িতে রীতিমতো পীতাম্বরি ধোনি-র অর্ধাঙ্গিনী। দর্শকাসনে বসে একবার স্ত্রীকে আড়চোখে দেখেও নেন ধোনি।

প্রাক্তণ ভারত অধিনায়কের হাতে পদ্মভূষণ সম্মান তুলে দেওয়ার এই ছবি মুহূর্তে ছড়িয়ে পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায়। বিসিসিআই এইদিন বিশ্বকাপ জয়ের বর্ষপূর্তির স্মরণে সোশ্য়াল মিডিয়ায় পোস্টও করেছিল। ধোনির পদ্মভূষণ সম্মান নেওয়ার ছবিও সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে বিসিসিআই।

এদিন ধোনির সঙ্গে আরও ৪৩ জনের হাতে দেশের বিভিন্ন নাগরিক সম্মান তুলে দেওয়া হয়। স্নুকারে বিশ্বের বিস্ময় পঙ্কজ আডবাণীর হাতে রাষ্ট্রপতি তুলে দেন পদ্মভূষণ সম্মান।

চলতি বছরের ২৫ জানুয়ারি এবারের পদ্মবিভূষণ, পদ্মভূষণ এবং পদ্মশ্রী সম্মান প্রাপকদের নাম ঘোষিত হয়েছিল। এম এস ধোনি এর আগে ২০০৭ সালে দেশের সর্বোচ্চ ক্রীড়া সম্মান 'রাজীব খেলরত্ন'-এ ভূষিত হয়েছেন। ২০০৯ সালে পেয়েছিলেন পদ্মশ্রী সম্মান। এই সম্মান প্রাপ্তির ৯ বছরের মাথায় দেশের তৃতীয় সর্বোচ্চ নাগরিক সম্মানে ভূষিত হলেন মহেন্দ্র সিং ধোনি।

ক্রিকেট ভালবাসেন? প্রমাণ দিন! খেলুন মাইখেল ফ্যান্টাসি ক্রিকেট

Story first published: Monday, April 2, 2018, 22:36 [IST]
Other articles published on Apr 2, 2018

পান মাইখেল-এর ব্রেকিং নিউজ অ্যালার্ট
mykhel Bengali